কুড়িগ্রাম শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০৬:৫৯ এএম

শিরোনাম
  ফুলবাড়ীতে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ       নিম্নমানের কাজ করায় স্কুল ভবনের ড্রপ ওয়াল ভেঙ্গে দিলেন প্রশাসন       বিএসএফ’র গুলিতে আহত ভারতীয় কিশোর কুড়িগ্রামে চিকিৎসাধীন       কুড়িগ্রামে লকডাউনে বিপাকে শ্রমজীবী       কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে শিশু ধর্ষণের চেষ্টা, থানায় মামলা       কুড়িগ্রামে চোরাকারবারীর হাতে ভারতীয় বিএসএফ আহত, সীমান্তে পতাকা বৈঠক       চিলমারী আ’লীগ কার্যালয় ভাঙচুরের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন       কুড়িগ্রামে স্বাস্থ্যবিধি মানতে মাঠে জেলা প্রশাসন       চিলমারীতে বিনামূল্যে পিপিআর রোগের টিকাদান ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন       কুড়িগ্রামে কুখ্যাত মাদক কারবারি গ্রেপ্তার    
 

শঙ্কা থেকেই সুরক্ষা

প্রকাশিত সময়: মে, ১১, ২০২০, ১০:১০ অপরাহ্ণ  

 
 

নুসরাত জাহান:
কলেজ বন্ধ। কতদিন থেকে বাড়ীতে আছি। খুব ইচ্ছে করে, বাড়ীর সামনের সবুজ মাঠে, ক্ষেতে সেই পুরোনো দিনের মত  বিচরণ করতে। চাচতো- ফুপাতো সব ভাই-বোনেরা মিলে হৈ-হুল্লোড় করতে। পুরোনো সেই দিন গুলো খুব মনে পরে।

আমার ৮ম শ্রেণীতে পড়ুয়া ছোট ভাইটাকে তো একরকম ধরে বেঁধেই ঘরে থাকতে বাধ্য করা হচ্ছে। দুরন্ত কিশোর, তাকে ঘরে আটকে রাখা অসাধ্য প্রায়। কিন্তু পরিস্থিতির স্বীকারে এই অসাধ্যটাকেই সাধন করতে হচ্ছে আজ আমাদের। কারন, করোনা নামক ভাইরাসের ভয়াল গ্রাসে আজ আমরা বন্দী। প্রায় ২০ বছর থেকে আব্বুর ডায়াবেটিস, দাদীর বার্ধক্য জনিত অসুখ, আম্মুও ইদানীং টুকটাক অসুস্থতায় ভোগেন। আমাদের এই ছোট্ট গ্রামের অনেক লোকই কর্মসূত্রে ঢাকায় থাকেন। মহামারীর সাধারণ ছুটি পেয়ে তাদের সিংহভাগই চলে এসেছেন গ্রামে। ভয় হয় প্রতিনিয়ত, কোন মাধ্যমে করোনা নামক এই কালনাগের  ছোবল এখান অবধি পৌঁছে যাবে নাতো! আমি কিংবা ছোটভাই আমরা বয়সে কারনে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার জোরে বেঁচে যাব হয়তো। কিন্তু আব্বু, আম্মু, দাদী! তারা এই ভয়াবহতা প্রতিরোধ করতে পারবে তো! রোগে ভোগা এ মানুষ গুলোর রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা তো এমনিতেই অনেক কম। পরিবারের প্রিয় মানুষ গুলোকে ভাল রাখতে হলে তো আমাদের নিজেদের সচেতনতা অবলম্বন করতে হবে। কাছের মানুষগুলোর প্রতি শঙ্কা থেকেই নিজেদের সুরক্ষিত রাখবার সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা।


ট্যাগঃ

   
 
আরও পড়ুন
 
 
Top